ব্লগ

বঙ্গবাণী কবিতা, আবদুল হাকিম। মূলভাব ও ব্যাখ্যা বিশ্লেষণ সহ

ওহে, আপনি যদি বঙ্গবাণী কবিতা, বঙ্গবাণী কবিতার পাঠ পরিচিতি এবং কবি পরিচিতি সম্পর্কে অনুসন্ধান করেন তবে আপনি সঠিক জায়গায় এসেছেন। বিস্তারিত দেখার পূর্বে ভিজিট করে ঘুরে আসুন এখান থেকে। যা যা পাচ্ছেন: বঙ্গবাণী কবিতার মূল কথা কী । বঙ্গবাণী কবিতা pdf । বঙ্গবাণী কবিতাটি কোন কাব্যগ্রন্থ থেকে সংকলিত । বঙ্গবাণী কবিতা বিশ্লেষণ । আব্দুল হাকিমের বঙ্গবাণী কবিতার ভাব বিশ্লেষণ ।

বঙ্গবাণী কবিতা

বঙ্গবাণী
আবদুল হাকিম

কিতাব পড়িতে যার নাহিক অভ্যাস।
সে সবে কহিল মোতে মনে হাবিলাষ।।
তে কাজে নিবেদি বাংলা করিয়া রচন।
নিজ পরিশ্রম তোষি আমি সর্বজন।।

আরবি ফারসি শাস্ত্রে নাই কোন রাগ।
দেশী ভাষে বুঝিতে ললাটে পুরে ভাগ।।
আরবি ফারসি হিন্দে নাই দুই মত।
যদি বা লিখয়ে আল্লা নবীর ছিফত।।

যেই দেশে যেই বাক্য কহে নরগণ।
সেই বাক্য বুঝে প্রভু আপে নিরঞ্জন।।
সর্ববাক্য বুঝে প্রভু কিবা হিন্দুয়ানী।
বঙ্গদেশী বাক্য কিবা যত ইতি বাণী।।

মারফত ভেদে যার নাহিক গমন।
হিন্দুর অক্ষর হিংসে সে সবের গণ।।
যে সবে বঙ্গেত জন্মি হিংসে বঙ্গবাণী।
সে সব কাহার জন্ম নির্ণয় ন জানি।।

দেশী ভাষা বিদ্যা যার মনে না জুয়ায়।
নিজ দেশ তেয়াগী কেন বিদেশ ন যায়।।
মাতা পিতামহ ক্রমে বঙ্গেত বসতি।
দেশী ভাষা উপদেশ মনে হিত অতি।।

বঙ্গবাণী কবিতার মূলভাব ব্যাখা বিশ্লেষণ

বঙ্গবাণীকবিতাটি কবি আবদুল হাকিমের নূরনামাকাব্যগ্রন্থ থেকে সংকলন করা হয়েছেমধ্যযুগীয় পরিবেশে বঙ্গভাষী এবং বঙ্গভাষার প্রতি এমন বলিষ্ট বাণীবদ্ধ কবিতার নিদর্শন দুর্লভকবি এই কতািয় তাঁর গভীর উপলব্ধি বিশ্বাসের কথা নির্দ্বিধায় ব্যক্ত করেছেন।

আরবি ফারসি ভাষার প্রতি কবির মােটেই বিদ্বেষ নেইসব ভাষায় আল্লাহ মহাবীর স্তুতি বর্ণিত হয়েছেতাই এসব ভাষার প্রতি সবাই পরম শ্রদ্ধাশীলযে ভাষা জনসাধারণের বােধগম্য নয়, যে ভাষায় অন্যের সঙ্গে ভাববিনিময় করা যায় না সে সব ভাষাভাষী লােকের পক্ষে মাতৃভাষায় কথা বলা বা লেখাই একমাত্র পন্থা

এই কারণেই কবি মাতৃভাষায় গ্রন্থ রচনায় মনােনিবেশ করেছেনকবির মতে, মানুষ মাত্রেই নিজ ভাষায় স্রষ্টাকে ডাকে আর স্রষ্টাও মানুষের বক্তব্য বুঝতে পারেনকবির চিত্তে তীব্র ক্ষোভ এজন্য যে, যারা বাংলাদেশে জন্মগ্রহণ করেছে, অথচ বাংলা ভাষার প্রতি তাদের মমতা নেই, তাদের বংশ ও জন্ম পরিচয় সম্পর্কে কবির মনে সন্দেহ জাগে

কবি সখেদে বলেছেন, এ সব লােক, যাদের মনে স্বদেশের ও স্বভাষার প্রতি কিছুমাত্র অনুরাগ নেই তারা কেন এদেশ পরিত্যাগ করে অন্যত্র চলে যায় না! বংশানুক্রমে বাংলাদেশেই আমাদের বসতি, বাংলাদেশ আমাদের মাতৃভূমি এবং মাতৃভাষায় বর্ণিত বক্তব্য আমাদের মর্ম স্পর্শ করে। এই ভাষার চেয়ে হিতকর আর কী হতে পারে

কবি আবদুল হাকিম এর পরিচিতি

আনুমানিক ১৬২০ খ্রিষ্টাব্দে সন্দ্বীপের সুধারামপুর গ্রামে আবদুল হাকিম জন্মগ্রহণকরেনমধ্যযুগের অন্যতম প্রধান কবি আবদুল হাকিমের স্বদেশের স্বভাষার প্রতি ছিল অটুট অপরিসীম প্রেমসেই যুগে মাতৃভাষার প্রতি এমন গভীর ভালােবাসার নিদর্শন ইতিহাসে এক বিরল দৃষ্টান্ত এবং পরবর্তী প্রজন্মের জন্য কালজয়ী আদর্শ

নূরনামা তাঁর বিখ্যাত কাব্যগ্রন্থ। তাঁর অন্যান্য উল্লেখযােগ্য কাব্যগ্রন্থ হলাে : ইউসুজোলেখা, লালমতি, সয়ফুলমুলক, শিহাবুদ্দিননামা, নসীহত্যামা, কারবালা শহরনামা। তাঁর কবিতায় অনুপম ব্যক্তিত্বের পরিচয় মেলেতিনি ১৬৯০ সালে মৃত্যুবরণ করেন। 

আমাদের নিয়মিত পোষ্ট পেতে ফেসবুক পেজ এ লাইক দিন। কবিতা বিষয়ক আরও পোষ্ট পেতে ভিজিট করুন

Leave a Reply

Your email address will not be published.

Back to top button