অনলাইন ইনকামব্লগ

অনলাইনে ইনকাম বাংলাদেশী সাইট ২০২২ (বাচাইকৃত সেরা তালিকা)

আমরা অনেকেই অনলাইন থেকে আয় করার পদ্ধতি নিয়ে অনুসন্ধান করে থাকি। আবার অনেকেই খুজে চলেছেন কোন সাইট (Site) থেকে অনলাইনে ইনকাম (Online income) করা যায় এমন সন্ধ্যানে। আন্তর্জাতিক পর্যায়ে অবশ্যই অনেক নামকরা কিছু মার্কেটপ্লেস রয়েছে যেমন Upwok, Fiverr, People Per Hour, Freelancer.com, 99design ইত্যাদি। কিন্তু ঐ সব সাইট গুলোতে কাজ করতে আপনাকে নির্দিষ্ট বিষয়ের উপর পুরোপুরি এক্সপার্ট হতে হয় কেননা ওয়ার্লওয়াইড সকল ভালোমানের ফ্রিলান্সাররা এখানে কাজের জন্য বিড করে তাই পর্যাপ্ত কাজের স্কিল এবং ল্যাংগুয়েজ স্কিল না থাকলে এ সব মার্কেটপ্লেসে আপনার পক্ষে সহজেই কাজ পাওয়া কিংবা সহজেই ইনকাম করা সম্ভব হবে না। তাই আজ এই পোষ্টে আলোচনা করবো অনলাইনে ইনকাম বাংলাদেশী সাইট ২০২২ নিয়ে যেখানে ল্যাঙ্গুয়েজ নিয়ে কোনো সমস্যা নেই এবং কি আপনার কাজের মোটামোটি দক্ষতা থাকলেও এসব গুলোতে কাজ করে ইনকাম করতে পারবেন। চলুন তাহলে শুরু করা যাক বাচাইকৃত সেরা তালিকা দিয়ে ।

ধৈর্য্য অত্যান্ত মূলবাণ একটি শব্দ। যদি আপনি ধৈর্য্য ধরে পুরো পোষ্টটি পড়েন তবেই কিছু জানতে ও  শিখতে পারবেন।

অনলাইনে ইনকাম বাংলাদেশী সাইট ২০২২

এই অংশেআমরা আলোচনাকরব ঘরে বসে বাংলাদেশী ইনকাম সাইট থেকে ফ্রিলান্সিং করেকিভাবে টাকাআয় করা যায় তা নিয়ে। সুতরাং আলোচনাশুরু করা হচ্ছে অনলাইনে ইনকাম করতেপারবেন এমনকিছু বাংলাদেশী সাইট ২০২২ নতুন আপডেটঅনুযায়।

বিল্যান্সার (belancer.com – সেরা অনলাইনে ইনকাম বাংলাদেশী সাইট ২০২২)

বন্ধুরা আমরাযারা অনলাইন আয়েরকথা শুনেছি তারা অবশ্যই ফ্রিলান্সিং কথাটিশুনে থাকব। Belancer.com হচ্ছে এমনই একটিবাংলাদেশী সাইট যেখানথেকে ফ্রিলান্সিংকরে ঘরে বসেই ইনকামকরতে পারব। আর এই সাইটটি বাংলাদেশি হওয়ায় এখানথেকে টাকাউত্তলনে কোনো প্রকারঝামেলা পোহাতেহয় না। খুব সহজেইআপনার কষ্ঠে উপার্জন করাটাকা আপনি ব্যাংক, বা মোবাইলব্যাংকিং এর মাধ্যমে তুলেনিতে পারবেন।

আমরা অনেকেই বড়বড় ফ্রিলান্সিং মার্কেটপ্লেসে কাজ করতেছি। কেউ মাশাল্লাহ ভালোকাজ করছে আবারকেউ লেগেই আছে কাজপাওয়ার আশা নিয়ে। যেহেতু ঐ মার্কেটপ্লেস গুলো অনেকবড় এবং সার্ভিস প্রোভাইডার ও অনেক বেশি তাই সেখানে নতুন রা এতোসহজে কাজ পায় না। সুতরাং সহজে কাজ পাওয়ারজন্য আপনি  অনলাইনে ইনকাম বাংলাদেশী সাইট বিল্যান্সার ব্যবহারকরতে পারেন।

এছাড়াও আমরা যারা ইংরেজিতেএকটু দূর্বল তারা ইন্টারনেশনাল মার্কেটপ্লেস গুলোতে কাজ পাইনা বললেই চলে। পেলেও ঠিকমতো কাজ জমা দিতে পারেনা। কেননা, তারা ক্লায়েন্টের রিকুয়ারমেন্ট বুঝেনা। তাই আপনি যদিইংরেজি একদম না জানেন তাতেওআপনার কোনো সমস্যাহবে না বিল্যান্সার এ কাজ করতে। কারণ এইসাইট টি যেহেতু বাংলাদেশীদের জন্য তৈরিকরা তাই এখানে আপনিবাংলা ভাষাতেই কথাবলে ক্লায়েন্ট এর কাছ থেকে কাজ নিতেপারবেন।

Read More:   ১০০% নিশ্চিত অনলাইন ইনকাম মোবাইল দিয়ে ২০২২ (ভিডিও সহ)

Belancer থেকে আয় করার উপায়

বিল্যান্সার হচ্ছে একটি ফ্রিলান্সিং মার্কেটপ্লেস। আমরা অনেকেইশুনেছি ফ্রিলান্সিং করে অনলাইনেটাকা আয় করতে হলে দক্ষতাপ্রয়োজন। হ্যা, আপনি ঠিকইশুনেছেন। এখানে থেকে টাকাইনকাম করতে হলে আপনাকেকোনো না কোন বিষয়ে একটি কাজেরউপর ভালো অভিজ্ঞতা থাকতেহবে। এখন হয়তো আপনিচিন্তায় পরে গেছেন আমারতো কোনো দক্ষতা নেই তাহলে কিআমি কাজ করতেপারব না? হ্যা অবশ্যইপারবেন। এর জন্য আপনাকে একটু পরিশ্রমকরতে হবে। একটু সময় দিয়ে একটি কাজশিখে ফেলতে হবে।  ইউটিউবে সার্চকরলে ফ্রিলান্সিং করারজন্য অনেক কাজপেয়ে যাবেন। যেমন, গ্রাফিক ডিজাইন, ওয়েব ডিজাইন, ডাটা এন্ট্রি সহ বিভিন্ন ক্যাটাগরিতে কাজ শিখানোহয় ইউটিউবে তাও একদম ফ্রিতে।

কাজ শেখা হয়েগেলে বা আপনি যদি কোনকাজে দক্ষ হয়েথাকেন তাহলে এখানে রেজিষ্ট্রেষণ করলেআপনি দেখতে পাবেন অনেক মানুষ বিভিন্ন ক্যাটাগরিতে কাজেরপোষ্ট করছে। এখান থেকে আপনি যেকাজটি পারেন সেকাজে এপ্লাই করার মাধ্যমে আপনি কাজটিপাবেন। কাজপাওয়ার পর ক্লায়েন্টের রিকুয়ারমেন্টঅনুযায়ী কাজ সমপন্নকরে জমা দেওয়ার বিনিময়ে আপনিবেশ কিছু টাকা আয়করতে পারেন।

Government Free Freelancing Course in Bangladesh

কাজ কী ডটকম (kazki.com)

অনলাইনে ইনকাম বাংলাদেশী সাইট গুলোর মধ্যেআরও একটি ফ্রিলান্সিংসাইট হল kazki.com । আপনার যদিইংরেজিতে কথা বলতে বামেসেজ করতে কোনো সমস্যাহয়। অর্থাৎ আপনিযদি ইংরেজিতে দুর্বলথাকেন। তবে  কাজকি ডটকম আপনার জন্য একটিসেরা অনলাইন ইনকাম সাইটহবে। কেননা, এখানে কাজকরতে হলে আপনারইংরেজিতে তেমন পারদর্শী হতেহবে না। এখানে যেহেতু বাংলাভাষায় ক্লায়েন্ট এর সাথে কথাবলা যায় তাই খুব সহজেই কাজপাওয়া যায়। এই মার্কেট প্লেসে বর্তমানে ২০০০ এর থেকেও বেশিবাংলাদেশী ফ্রিলান্সারকাজ করছে।

আমরা অনেকেই ফাইভার মার্কেটপ্লেসের কথা শুনেথাকব। কাজ কী ডটকম মুলত ফাইভার এরমতোই কাজ করে।  ফাইভারে যেমনআপনাকে আপনার সার্ভিসসম্পর্কে যাবতীয় তথ্যদিয়ে একটি গিগতৈরি করে পাবলিশকরতে হয়, ঠিক তেমনি কাজ কী ডটকম এ আপনিযে কাজ জানেন সেইকাজ এর উপরভিত্তি করে একটি গিগ তৈরি করতেহবে। আপনার সার্ভিসটি যদি কোনোক্লায়েন্টের পছন্দ হয়। তবে সেআপনাকে অর্ডার করবে।

কাজ কি ডটকম এ আপনি বিভিন্নক্যাটাগরিতে কাজ করতেপারবেন। যেমন, গ্রাফিক্স ডিজাইন, ডিজিটাল মার্কেটিং, ভিডিও এনিমেশন, কন্টেন্ট রাইটিং, ডাটা এন্ট্রি ইত্যাদি। এছাড়াও এখানেআরও অনেক ক্যাটাগরি, সাব ক্যাটাগরি রয়েছে। যেখানে আপনি যেকোনোকাজের সার্ভিস দিতেপারবেন। বিনিময়ে বেশকিছু টাকা আয়করতে পারবেন।

স্বাধীন কাজ ডটকম (shadhinkaj.com)

স্বাধীন কাজ ডটকম মূলতবাংলাদেশী ফ্রিলান্সারদের উদ্যেশেতৈরি করা হয়েছে। সেইসাথে এখানে যারাকাজ দিয়ে থাকে তারাও বাংলাদেশী। প্রতিটিকাজে কম্পিটিশন ও তুলনামুলককম তাই এখানে কাজপাওয়ার সম্ভাবনা অনেকবেশি।

এই সাইটি মুলত Upwork  এর মতো একটিফিলান্সিং সাইট। এখানেক্লায়েন্ট তার কাজের যাবতীয় তথ্যদিয়ে একটি পোস্ট লিখে। ঐ কাজেরউপর যে সকল ফ্রিলান্সার স্বাধীনকাজ ডটকম এ সার্ভিসপ্রদান করে থাকে। তাদেরকাছে অটোমেটিক একটি নোটিফিকেশন চলেযায়। যে সকল ফ্রিলান্সার এইকাজ সম্পন্ন করতেপারবে বলে মনেকরেন তারা এইকাজের উপর বিট করেথাকেন। ক্লায়েন্ট যদিমনে করেন সে কাজটিকরতে পারবে তখনতাকে কাজটি করতে দেওয়াহয়।  এভাবেই মুলত স্বাধীন কাজ ডটকম এ কাজ নিতেহয়।

একজন ফ্রিলান্সারযখন কোনো ক্লায়েন্টের কাজসাবমিট করেন তখন ঐ কাজের মূল থেকে ২০% স্বাধীন কাজ ডটকম কেটেনিয়ে থাকে। অর্থাৎ একটা প্রজেক্টেরমুল্য যত টাকাধরা হয়। তারমধ্যে থেকে ৮০% টাকা ফ্রিল্যান্সারপায় আর ২০% টাকা মার্কেটপ্লেস পায়।

আরও অনেক অনলাইনে ইনকাম বাংলাদেশীসাইট আছে যেখানথেকে আপনিনিজের সার্ভিস প্রদানকরে বেশ ভালোটাকা আয় করতে পারবেন। কিন্তু এই ফ্রিলান্সিং মার্কেটপ্লেস গুলোতে কাজকরতে হলে আপনাকেকোনো না কোনো কাজশিখে নিতে হবে। কাজনা জানতে যেম কোনো কোম্পানীতে জবকরা যায়না। ঠিক তেমনইকাজ না জানলে আপনিফ্রিলান্সিং মার্কেট প্লেস গুলোতেকাজ করতে পারবেননা। তাই আপনারউচিত সবার আগেকাজ শিখা।

আপনি যদি ফ্রিলান্সিং মার্কেট গুলোতেকাজ করতে ইচ্ছেপ্রকাশ না করেন তাতেও সমস্যানেই। কারণ আমরাএখন আপনাকে আরও বেশকিছু অনলাইনে ইনকাম বাংলাদেশীসাইট নিয়ে আলোচনাকরব। যা আমাদেরএই লেখার দ্বিতীয় অংশে বলারকথা ছিল।

দারাজ (অন্যতম জনপ্রিয় অনলাইনে ইনকাম বাংলাদেশী সাইট ২০২২ )

দারাজ সাইট কে চিনে না এমনমানুষ খুবকমই আছে আমাদেরদেশে। দারাজ বাংলাদেশের একটি জনপ্রিয় ই কমার্স ওয়েবসাইট। আমরা সবাই জানি দারাজবিভিন্ন ধরনের পণ্যঅনলাইনে বিক্রি করে। কিন্তু আমরা অনেকেই জানিনা যে, দারাজ থেকেও টাকাআয় করা যায়। হ্যা, সত্যিই অনলাইন ইনকাম বাংলাদেশী সাইট 2022 এ দারাজথেকে টাকা আয়করা যায়। আর সেইমাধ্যমটি হল এফিলিয়েট মার্কেটিং।

মুলত অন্যেরপণ্য বিক্রিকরে দেওয়ায়হল এফিলিয়েট। কেউ যখন দারাজেএকটি এফিলিয়েট একাউন্ট চালুকরে তখন তার জন্য প্রতিটিপণ্যের উপর একটি এক্সট্রা কমিশনেরব্যবস্থা থাকে। যখনকোনো এফিলিয়েট মার্কেটার দারাজেরকোনো পণ্য বিক্রিকরে তখন একটি নির্দিষ্টপরিমাণ কমিশন তাকে দেওয়াহয়। এভাবেই দারাজথেকে পণ্য বিক্রিকরে বেশভালো টাকা আয় করাযায়।

বিক্রয় ডট কম

বিক্রয় ডটকম দারাজেরমতোই একটি বেচাকেনার ওয়েবসাইট। আমরাঅনেকেই এই সাইটের সাথেপরিচিত থাকব।  এই সাইটে মূলতফেলে রাখা পুরাতনমালামাল ক্রয় এবং বিক্রয়করা যায়। বাচ্চাদের একটিপুতুল থেকে শুরুকরে জায়গা জমি পর্যন্ত ক্রয়বিক্রয় হয়। তবে বর্তমানেএখানে নতুন মালামাল ও বিক্রিহয়ে থাকে।

আপনার যদি পুরাতনকোনো মালামাল  যেমন, মোবাইল, ল্যাপটপ, সাইকেল, টিভি ইত্যাদি থাকে তবেএই সাইটে আপনারা খুবসহজেই বিক্রি করতেপারবেন। এখানে লক্ষলক্ষ ক্লায়েন্ট রয়েছে আপনারপণ্যটি কিনে নেওয়ারজন্য।

আপনি যদি একটিসাইকেল বিক্রি করতেচান। তবে সাইকেলের কয়েকটিছবি তলে সাথে সাইকেলেরবিবরণ লিখে এই সাইটে একটি পোষ্টকরলেই হাজার হাজার ক্রেতারকাছে আপনার পণ্যেরনোটিফিকেশন চলেযাবে। এখান থেকে যারা আপনার পণ্যটিকিনতে চায়। তারা আপনাকেমেসেজ দিবে। তখন আপনিতাদের কাছেফেলে রাখা সাইকেলটি অনলাইনেবিক্রি করে কিছু টাকাআয় করতে পারেন।

ইসুজন ডট কম (eSujon.com)

আপনার যদি ভালো রাইটিং স্কিল থাকে তবে আপনি এই সাইটে কাজ করতে পারেন। আপনি যে ক্যাটারীতে দক্ষ সে ক্যাটাগরীতে লিখার জন্য আপনাকে টপিক দেওয়া হবে এই সাইটে। আর্টিকেল এর মান যাচাই করে রাইটারদেরকে এই সাইট আর্টিকেল প্রতি নূন্যম ২০/- থেকে ১০০ টাকা পর্যন্ত দিয়ে থাকে।  এখান থেকে পাওয়া অর্থ সহজেই বিকাশ/ রকেট বা নগদের মাধ্যমে নেওয়া যায়।

ক্লিক করে ইনকাম সাইট 2022 (PTC BD)

নরমালী পিটিসি সাইটগুলো তাদের ইউজারদের ১০০% পেমেন্টকরে থাকে যদি ইউজাররা সাইটেরনিয়ম মেনে কাজকরে। PTC BD একটি বাংলাদেশি সাইট। প্রতিদিন নিয়মমেনে কাজ করলে এখানথেকে বেশ ভালোএকটা টাকা উপার্জনকরা সম্ভব। পিটিসি সাইট গুলো থেকেমুলত সার্ভে, গুগল এড, এবং রেফার করার মাধ্যমেটাকা আয় করা যায়। এই সাইটটিও এর থেকে বিকল্পনয়। এখান থেকেও এই কাজগুলো করে টাকাআয় করতে পারবেন।

পিটিসি বিডি থেকে আপনিআপনার উপার্জনের টাকামোবাইল রিচার্জ, বিকাশ, রকেট ইত্যাদি মোবাইল ব্যাংকিং এর মাধ্যমে নিতে পারবেন। এই সাইটটিএখন পর্যন্ত পেমেন্টকরেছে ১৭৯ ডলার। এবং এইসাইটে বর্তমানে কাজকরছে ৩৬৪৫ জন। এই সাইট টি একদমইনতুন। এখানথেকে আপনি প্রতিদিনসর্বোচ্চ ৫০ থেকে ২০০ টাকা আয়করতে পারবেন। যারা সতিই অনলাইন থেকেইনকাম করতে চান তারা এইসাইটে কাজ করতেপারেন।  

আমাদের শেষ কথা

পরিশেষে আমিআপনাকে বলব। PTC Site থেকে যতটাসম্ভব দূরে থাকুন। কেননা, এই সাইটগুলো যে কোনো সময়বন্ধ হয়ে যেতে পারে। এছাড়াও এই সাইটগুলো থেকে আপনিযে পরিমাণ টাকাআয় করবেন তাদিয়ে আপনার হাতখরচের টাকাটি হয়তো হবে  কিন্ত এখান থেকে আপনি ভালো কিছু টাকাকখনোই আর্ন করতে পারবেন না। আর তাই PTC Site নিয়ে আমি বেশি আলোচনা করছি নাহ।

আপনি যদি সতিইঅনলাইন থেকে টাকা আয়করতে চান বা আগ্রহী হন। তবে আমাদেরপরামর্শ থাকবে আগেআপনি যে কোনো একটিকাজ শিখুন। কারণ কাজনা শিখলে আপনি কখনোইভালো ফলপাবেন না। আপনি যদি এরপর ও পিটিসি সাইটের পেছনেলেগে থাকেন তবে আপনিঅনলাইন জগতে টিকেথাকতে পারবেন না। ধন্যবাদ পুরো আর্টিকেলটি সময় দিয়ে পড়ার জন্য । আশাকরি এখন আপনি অনলাইনে ইনকাম বাংলাদেশী সাইট ২০২২ সম্পর্কে সঠিক ধারণা রাখেন। 

Leave a Reply

Your email address will not be published.

Back to top button