পড়াশোনামাধ্যমিক/ উচ্চ মাধ্যমিক

বই পড়ার অভ্যাস গঠনে লাইব্রেরির গুরুত্ব বিশ্লেষণ (এসাইনমেন্টের উত্তর)

আপনি কি নবম (৯ম) শ্রেণির বাংলা অ্যাসাইনমেন্ট বই পড়ার অভ্যাস গঠনে লাইব্রেরির গুরুত্ব বিশ্লেষণ উত্তর সমাধান ২০২২ ২য় সপ্তাহ ১০০% নির্ভুল অনুসন্ধান করে চলেছেন? তবে আপনি সঠিক জায়গায় এসেছেন।  মাধ্যমিক ও উচ্চ মাধ্যমিক শিক্ষা অধিদপ্তর থেকে আপনাদের দ্বিতীয় সপ্তাহের এসাইনমেন্ট ইতিমধ্যে প্রকাশ করেছে ।

নবম শ্রেণির বাংলা অ্যাসাইনমেন্ট উত্তর ২০২২ (৩য় সপ্তাহ)

প্রথমে আমরা দেখে নিই অ্যাসাইনমেন্টে কি কি রয়েছে- নিম্নোক্ত চিত্রে সুন্দরভাবে নবম শ্রেণির বাংলা অ্যাসাইনমেন্ট সমাধান ২০২২ কিভাবে করবেন তা পুঙ্খানুপুঙ্খ ভাবে উল্লেখ করা আছে।

বাংলা অ্যাসাইনমেন্ট সপ্তম (৭ম) শ্রেণির ২০২২ ৩য় সপ্তাহ

এসাইনমেন্টের শিরোনাম অনুযায়ী মূল্যায়ন নির্দেশিকা গুলো হেডিং আকারে দিয়ে সমাধান করা হলো। অ্যাসাইনমেন্টের উত্তর এখান থেকে শুরু হচ্ছে।

শিরোনাম: বই পড়ার অভ্যাস গঠনে লাইব্রেরির গুরুত্ব বিশ্লেষণ

লাইব্রেরির পরিচয়

লাইব্রেরি বা প্রকৃত অর্থে “পাঠাগার” হলো বই, পুস্তিকা ও অন্যান্য তথ্য সামগ্রির একটি সংগ্রহশালা, যেখানে পাঠকের প্রবেশাধিকার থাকে এবং পাঠক সেখানে পাঠ, গবেষণা কিংবা তথ্যানুসন্ধান করতে পারেন।

যে ধরণের বই পড়তে ভালো লাগে

শুরু থেকে পড়াশোনার পাশাপাশি লাইব্রেরি সংগ্রহে থাকা অতিরিক্ত কিছু বই আমার পড়তে খুব ভালো লাগে। এখন অনেক বই আছে আমার সংগ্রহে। রূপকথা, উপকথা, গোয়েন্দা, মুক্তিযুদ্ধ, ছড়া, কবিতা, ইতিহাস, সাধারণ জ্ঞান, সায়েন্স ফিকশন, ভ্রমণকাহিনি ইত্যাদি। ভ্রমণকাহিনির মধ্যে আছে ‘দেশে বিদেশে’‘পথে প্রবাসে’, ‘জাপান যাত্রীর পত্র’‘বিলাতে সাড়ে সাতশ দিন’‘মোটরযোগে রাঁচি সফর’ ইত্যাদি। রূপকথা, মুক্তিযুদ্ধ, ভ্রমণকাহিনি পড়তে আমার বেশি ভালো লাগে।

লাইব্রেরির প্রয়োজনীয়তা

লাইব্রেরি তথ্যভাণ্ডার ও জ্ঞানচর্চার সর্বোত্তম স্থান। যুগের সঙ্গে তাল মিলিয়ে লাইব্রেরি হয়েছে সমৃদ্ধ এবং দৈনন্দিন জীবনের অপরিহার্য অংশ। বর্তমানে পাঠাগারে দুই মাধ্যমে বই থাকে-সফ্ট কপি, যা পিডিএফ আকারে পড়া যায় এবং হার্ড কপি, যা ছাপানো বই। ই-লাইব্রেরি হলো অনলাইনে বই পড়ার মাধ্যম। অনলাইন পেজগুলোতে ফ্রি অথবা টাকার বিনিময়ে বই পড়া যায়। ইন্টারনেটের মাধ্যমে খুব সহজেই দেশি-বিদেশি লেখকের বই পড়া যায়, যা সহজলব্ধ হওয়ায় খুবই জনপ্রিয় হয়ে উঠেছে।

অন্যদিকে লাইব্রেরিগুলোতে প্রাতিষ্ঠানিক শিক্ষার বই ছাড়াও জনপ্রিয় লেখকদের বই, পত্রিকা, অভিধানসহ নানা বিষয়ের বই রয়েছে। তবে সব বই সংরক্ষণ করা যেমন কষ্টসাধ্য, তেমনি ব্যয়বহুল। তাছাড়া বিশ্ববিদ্যালয়গুলোর লাইব্রেরিতে শিক্ষার্থীদের চাহিদা অনুযায়ী বই সংগৃহীত থাকে না, যার ফলে ই-লাইব্রেরির ওপর বেশি নির্ভরশীল হচ্ছে শিক্ষার্থীরা। তাই প্রতিটি বিশ্ববিদ্যালয়ে নিজস্ব ই-লাইব্রেরি প্রতিষ্ঠা করা প্রয়োজন। বইয়ের যথাযথ সংরক্ষণই পারে শিক্ষাব্যবস্থায় জ্ঞানচর্চা বাড়াতে। সুতরাং লাইব্রেরির প্রয়োজনীয়তা অপরিসীম

নিজের দেখা একটি লাইব্রেরির বিবরণ

প্রিয় শিক্ষার্থীরা এটা তোমাদের নিজের অভিজ্ঞতা থেকে লিখবে। তোমাদের আশেপাশে যদি কোনো লাইব্রেরি থাকে তবে ঐ লাইব্রেরি দেখতে কেমন, বই গুলো কেমন ভাবে গুছানো আছে, কি কি বইয়ের সমাহার রয়েছে ইত্যাদি নিয়ে এই পয়েন্ট তোমরা নিজেদের অভিজ্ঞতা থেকে লিখবে। তারপর ও যদি তোমরা কমেন্ট বক্সে আমাকে বলো তবে লিখতে পারি।

অতএব আপনি ইতিমধ্যে বই পড়ার অভ্যাস গঠনে লাইব্রেরীর গুরুত্ব বিশ্লেষণ সম্পর্কে আপনার অ্যাসাইনমেন্টের সমাধান পেয়ে গেলেন। কোনো মতামত থাকলে অবশ্যই কমেন্ট করে জানাবেন।

নবম শ্রেণীর সকল এসাইনমেন্টের সমাধান পেতে নিচের লিঙ্কে চাপুন।

Read More:   নবম (৯ম) শ্রেণির অ্যাসাইনমেন্ট ২০২২ ৩য় (তৃতীয়) সপ্তাহ (সমাধান সহ)

Leave a Reply

Your email address will not be published.

Back to top button