জীবনধারা

স্বামীর প্রতি স্ত্রীর ১০ টি আবশ্যিক কর্তব্য জানা জরুরী

মহান আল্লাহতালা আমাদের সৃষ্টির সেরা জীব হিসেবে সৃষ্টি করেছেন। এ কারণে আমাদের আশরাফুল মাখলুকাত বলা হয়। আমাদের মানুষের মধ্যে অনেকগুলো সম্পর্ক রয়েছে। এর মধ্যে অন্যতম সম্পর্ক হল স্বামী ও স্ত্রী। স্বামী স্ত্রীর সম্পর্ক অত্যন্ত মধুর ও ভালোবাসার। আজকের আর্টিকেলের আলোচ্য বিষয় হলো স্বামীর প্রতি স্ত্রীর ১০ টি আবশ্যিক কর্তব্য (10 duties of a wife to her husband) জানা অত্যান্ত জরুরী। চলুন তবে শুরু করা যাক এই বিষয়ে।

স্বামীর প্রতি স্ত্রীর ১০ টি কর্তব্য

স্বামী স্ত্রীর সম্পর্ক যত বেশি মধুর হবে তাদের সাংসারিক জীবনে তত বেশি সুখ শান্তি অর্জন হবে। একটি সংসারে সুখ শান্তি নির্ভর করে অনেকটাই স্ত্রীর উপর। কারণ একজন স্ত্রী যদি তার স্বামীর দায়িত্ব ও কর্তব্য সঠিকভাবে পালন করে তাহলে সেই সংসারটা আরো মধুর হয়ে ওঠে।

এ কারণে প্রত্যেকটা স্ত্রীর উচিত, স্বামীর প্রতি কি কি দায়িত্ব রয়েছে তা জানা। একজন স্ত্রীর,স্বামীর প্রতি অনেকগুলো দায়িত্ব ও কর্তব্য রয়েছে। এর মধ্যে থেকে আজকে আমরা স্বামীর প্রতি স্ত্রীর ১০ টি কর্তব্য আপনাদের সামনে তুলে ধরার চেষ্টা করব। আশা করি,আজকে আর্টিকেল মনোযোগ সহকারে পড়বেন।

১. স্বামীর আনুগত্য

স্বামীর প্রতি স্ত্রীর অন্যতম একটি কর্তব্য হল স্বামীর আনুগত্য করা। অর্থাৎ স্বামীর কথা মতো নিয়ে নিজের জীবনযাপন করতে হবে। একজন স্ত্রী যদি স্বামীর সঠিক আনুগত্য লাভ করতে পারে,তাহলে পরকালে সে জান্নাতে প্রবেশ করবে। এ সম্পর্কে মোহাম্মদ (সাঃ) বলেনঃ কোনো নারী যদি পাঁচ ওয়াক্ত নামাজ আদায় করে, রমজানের রোজা রাখে, নিজের সতীত্ব রক্ষা করে এবং স্বামীর আনুগত্য করে, তাহলে তাকে (কিয়ামতের দিন) বলা হবে, যে দরজা দিয়ে ইচ্ছে সেই দরজা দিয়ে জান্নাতে প্রবেশ করো। (মুসনাদে আহমাদ, হাদিস : ১৬৬১)।

অর্থাৎ এ হাদিস থেকে আমরা এই শিক্ষা লাভ করলাম যে, অবশ্যই আপনাকে পাঁচ ওয়াক্ত নামাজ ও রোজা রাখার পাশাপাশি স্বামীর আনুগত্য অর্জন করতে হবে। তাহলে আপনি কিয়ামতের দিন জান্নাতে প্রবেশ করতে পারবেন।

২. স্বামীর আমানত রক্ষা

স্বামীর প্রতি স্ত্রীর দায়িত্ব ও কর্তব্য গুলোর মধ্যে অন্যতম হলো স্বামীর আমানত রক্ষা করা। স্বামী যদি কোন কারণে বাইরে যায়,তাহলে তার অর্থ সম্পদ সঠিকভাবে পরিচর্যা করা। অর্থাৎ তার অর্থ সম্পদের দায়িত্ব সম্পূর্ণভাবে আপনাকে পালন করতে হবে। এছাড়াও বিশেষ করে স্বামীর অনুপস্থিতিতে নিজেকে অশালীন কাজ থেকে দূরে রাখতে হবে। অর্থাৎ নিজেকে পরকীয়া থেকে সবসময় বিরত থাকতে হবে।

৩. স্বামীর অবাধ্য না হওয়া

একজন স্ত্রীর দায়িত্ব সব সময় স্বামীর বাধ্যগতভাবে চলা। অর্থাৎ ইসলামিক শরীয়াহ কাজে আপনাকে সব সময় স্বামীর বাধ্যগতভাবে চলতে হবে। তবে আপনাকে যদি স্বামী ইসলামিক শরীয়তের বাইরে কোন কাজ করতে আদেশ করে। অবশ্যই আপনাকে সে সকল কাজ থেকে বিরত থাকতে হবে। অর্থাৎ আপনার স্বামী যদি নামাজ, রোজা,হজ্ব,যাকাত,ফিতরা এগুলো কাজের প্রতি আদেশ করলে অবশ্যই তা মেনে চলতে হবে। আবার সে যদি আপনাকে এগুলোর কাজ থেকে বিরত থাকতে বলেন। তাহলে আপনাকে কোমল ভাষায় তাকে বোঝাতে হবে। স্বামীর প্রতি স্ত্রীর ১০ টি কর্তব্য এর মধ্যে অন্যতম হলো এটি।

৪. স্বামীকে শ্রদ্ধা ও ভালোবাসা

আপনাকে অবশ্যই স্বামীকে সব সময় শ্রদ্ধা করতে হবে। এছাড়াও তাকে সব সময় ভালোবাসা দিয়ে আগলে রাখতে হবে।

৫. ভালো ব্যবহার করা

স্বামীর সাথে অবশ্যই আপনাকে সুন্দর ও ভালো ব্যবহার রাখতে হবে। স্বামী যদি কোন কাজে ভুল করে,তাহলে অবশ্যই তাকে সুন্দর করে বোঝানোর চেষ্টা করবেন।

৬. স্বামীকে বিশ্বাস করা

স্বামীকে অবশ্যই সকল কাজের বিশ্বাস করবেন। আপনি স্বামীকে যখন সকল কাজে বিশ্বাস করতে শুরু করবেন। তখন দেখবেন আপনার স্বামীও আপনার প্রতি বিশ্বাস করা শুরু করে দিয়েছে।

৭. কৃতজ্ঞতা প্রকাশ করা

স্বামী আপনার জন্য প্রতিদিন অনেক কষ্ট করে টাকা উপার্জন করে। এজন্য আপনাকে স্বামীর প্রতি কৃতজ্ঞতা প্রকাশ করতে হবে। স্বামীর প্রতি কৃতজ্ঞতা প্রকাশ করলে আপনার প্রতি তার ভালোবাসা আরো বেড়ে যাবে।

৮. স্বামীকে সন্তুষ্ট রাখা

স্বামীর প্রতি অন্যতম একটি দায়িত্ব হল স্বামীকে সন্তুষ্ট রাখার চেষ্টা করুন। অর্থাৎ আপনার যে কাজগুলো তিনি পছন্দ করেন না, সেগুলো কাজ আপনার করা যাবে না। আবার আপনার স্বামী যে কাজগুলো খুবই পছন্দ করে সেগুলো আপনাকে করতে হবে।

৯. স্বামীকে কষ্ট না দেওয়া

একজন স্বামী অনেক কষ্ট করে টাকা উপার্জন করার জন্য বিভিন্ন কাজে জড়িত থাকে। এইজন্য সবসময় আপনার স্বামীকে শ্রদ্ধা করবেন। এমন কোন ব্যবহার করা যাবে না,স্বামী যাতে কষ্ট পায়।

১০. স্বামীকে সময় দেওয়া

বর্তমানে সময়ে এমন অনেক স্ত্রী রয়েছে স্বামী অফিস থেকে বাসায় ফেরার পর,সে স্বামীকে ঠিকমতো সময় দিতে চায় না। কিন্তু স্বামীকে সময় দেওয়া আপনার গুরুত্বপূর্ণ একটি কর্তব্য। তাই নিজের ভার্চুয়াল জীবন ছেড়ে,অবশ্যই স্বামীর সাথে সময় কাটাবে। তাহলে দেখবেন আপনাদের সংসার আরো সুন্দর হয়ে উঠবে।

আমাদের শেষ কথাঃ স্বামী স্ত্রীর এই মধুর গড়ে তোলার জন্য একজন স্ত্রীর ভূমিকা অপরিসীম। একজন মেয়ের যখন বিবাহ হবে তখন কিন্তু সে স্বামীর ঘরে চলে যাবে। বিবাহ বন্ধনের মাধ্যমে মূলত একটা ছেলে মেয়ে স্বামী স্ত্রীকে পরিণত হয়। অবশ্যই একজন স্বামীর প্রতি স্ত্রীর অনেকগুলো দায়িত্ব ও কর্তব্য রয়েছে। এর মধ্যে থেকে আজকে আমরা স্বামীর প্রতি স্ত্রীর ১০ টি কর্তব্য সম্পর্কে জানতে পারলাম।

আশাকরি আজকের আর্টিকেলটি আপনার ভালো লেগেছে। যদি আমাদের এই আর্টিকেল সম্পর্কে আপনার কোনো মন্তব্য থাকে তবে আমাদেরকে কমেন্ট বক্সে জানাতে ভূলবেন না।

Read More:   জান্নাতের সুসংবাদ প্রাপ্ত ৪১ জন সাহাবীদের নাম
Read More:   গর্ভবতী মায়ের প্রথম তিন মাসের ঔষধ
Back to top button