সাহাবীদের নাম অর্থসহ

স দিয়ে সাহাবীদের ইসলামিক নাম অর্থসহ

আসসালামু আলাইকুম প্রিয় পাঠক। ধন্যবাদ আপনার অনুসন্ধান এবং আমাদের ওয়েবসাইটে ভিজিট করার জন্য। আপনি যদি ইতিমধ্যে অনলাইনে এসে অনুসন্ধান করে থাকেন স দিয়ে সাহাবীদের ইসলামিক নাম অর্থসহ তবে সঠিক জায়জায় এসেছেন। ‘সাহাবী’ শব্দটি আরবী ভাষার ‘সুহবত’ শব্দের একটি রূপ। একবচনে ‘সাহাবী’ (صحابي) এবং বহুবচনে ‘সাহাবাতুন’ (صحابة) ও ‘আসহাব’ (اصحاب) ব্যবহৃত হয়। আভিধানিক অর্থ সঙ্গী, সাথী, বন্ধু, অনুসারী, সহচর, এক সাথে জীবন যাপনকারী অথবা সাহচর্যে অবস্থানকারী। চলুন আজকের আর্টিকেলের আলোচ্য বিষয় স দিয়ে সাহাবীদের নাম অর্থসহ এই আর্টিকেলে বিস্তারিত জেনে নেওয়া যাক।

স দিয়ে সাহাবীদের নাম অর্থসহ

প্রিয় পাঠক আমরা ইতিমধ্যে ওয়েব রিসার্চ করে আপনার কাঙ্খিত অনুসন্ধান নিয়ে এই আর্টিকেল সমণ্বয় করেছি। স দিয়ে সাহাবীদের ইসলামিক নাম অর্থসহ আপনি অনুসন্ধান করে চলেছেন। আমরা ইতিমধ্যে কিছু বই এবং ওয়েব রিসার্চ ও করেছি সেক্ষেত্রে অর্থসহ পাওয়া যায়নি। তবে আশাবাদি যে অর্থসহ পাওয়া মাত্রই এই আর্টিকেলে তা যুক্ত করে আপডেট করে দেওয়া হবে। এখানে নামের তালিকা গুলো দেওয়া হলো:

  1. সাঈদ ইবনে আমির আল জুমাহি
  2. সাইদ ইবনুল আস
  3. সাদ ইবনে উবাদা
  4. সাদ ইবনে খাইসামা
  5. সাদ ইবনে মুয়াজ
  6. সাঈদ ইবনে যায়িদ
  7. সাওবান ইবনে নাজদাহ
  8. সাদ ইবনে যায়িদ আশহালি
  9. মোঃ সুলাইমান সাহাবী
  10. সাদ ইবনে আবি ওয়াক্কাস
  11. সাফওয়ান ইবনে উমাইয়া
  12. সাফিয়াহ বিনতে আবদুল মুত্তালিব
  13. সাদ ইবনে রাবি
  14. সাদ ইবনে হাবতা
  15. সাফিয়া বিনতে রাবিয়া
  16. সাবিত ইবনে ওয়াকশ
  17. সামুরা ইবনে জুন্দুর
  18. সালমা ইবনে সালামা
  19. সাবিত ইবনে কায়স
  20. সাবিত ইবনে দাহ্‌দাহ
  21. সালমান আল ফারিসী
  22. সালমান ইবনে রাবিয়া
  23. সালামা আবু হাশিম
  24. সালিম মাওলা আবু হুজাইফা
  25. সাহল ইবনে সাদ
  26. সালামা ইবনে হিশাম
  27. সালামা ইবনুল আকওয়া
  28. সাহল ইবনে হান্‌যালিয়া
  29. সাহল ইবনে হানিফ
  30. সুহাইব ইবনে সিনান আর রুমি
  31. সুহাইল ইবনে আমর
  32. সায়িব ইবনে খাল্লাদ
  33. সুরাকা ইবনে মালিক

আশাকরি আপনি ইতিমধ্যে স দিয়ে সাহাবীদের ইসলামিক নাম অর্থসহ সম্পর্কিত এই আর্টিকেলে আমাদের সংগ্রহ অনুযায়ী স যুক্ত সর্বমোট 33টি নামের তালিকা পেতে সক্ষম হয়েছেন। চলুন এই আর্টিকেলে উপরন্তু আরও একটি বিষয় সন্তানদের নাম রাখার ক্ষেত্রে কি কি সতর্কতা অবলম্বন করতে হবে এবার এ সম্পর্কে একটু জেনে নেওয়া যাক।

সন্তানের নাম রাখার ক্ষেত্রে সাবধানতা

ইসলাম ধর্মের অনুসারীদের কাফের মুশরিক এবং কুখ্যাত পাপীদের নামানুসারে নাম রাখা হারাম। তৎকালীন সময়ে আমাদের নবীজি সঃ বেশ কিছু সাহাবীদের নাম নিজেই পরিবর্তন করে দিয়েছিলেন যেসব সাহাবীর কুৎসিত ও আপত্তিকর নাম ছিল।

অর্থবোধক কুৎসিত/মন্দ ধর্মীয় ডিজিটাল
Χ Χ

আল্লাহর নির্দেশ : পবিত্র কোরআনে আল্লাহ তা’য়ালা বলেন, `হে জাকারিয়া, আমি (আল্লাহ) তোমাকে একপুত্রের সুসংবাদ দিচ্ছি। তার নাম হবে ইয়াহইয়া। এই নামে এর আগে আমি কারও নামকরণ করিনি। [সূরা মারিয়াম, আয়াত : ৭ (দ্বিতীয় পর্ব)]

সুন্দর নাম রাখার আরেকটি গুরুত্বপূর্ণ কারণ হল, হাশরের ময়দানে- সেখানে পূর্বাপর সকল মানুষ একত্রিত হবে এবং ব্যক্তিকে তার নাম ও তার বাবার নামসহ ডাকা হবে। সুন্দর নাম রাখার তাগিদ দিয়ে আমাদের রাসূল (সা.) ইরশাদ করেছেন, কিয়ামতের দিন তোমাদের নিজ নাম ও পিতার নামে ডাকা হবে। সুতরাং তোমরা সুন্দর নাম রাখো। (আবু দাউদ)

নাম মানুষের পরিচয়ের মাধ্যম। কিন্তু অত্যন্ত দুঃখের বিষয় হল, বর্তমান মুসলিম সমাজ ইসলামের দৃষ্টিতে নাম রাখার এ মহান গুরুত্ব পরিহার করে দিন দিন উদাসীনতার দিকে ছুটছে।

ধন্যবাদ প্রিয় পাঠক পোষ্টটি শুরু থেকে পড়ে আসার জন্য। আপনার কাঙ্খিত অনুসন্ধান স দিয়ে সাহাবীদের ইসলামিক নাম অর্থসহ নিয়ে এই আর্টিকেলে আলোচিত হয়েছে। এই আর্টিকেলটিতে প্রতিটি নামের অর্থ পাওয়া মাত্রই তা যোগ করে শীগ্রই আপডেট দেওয়ার চেষ্টা অব্যাহত থাকবে। নিত্যনতুন আর্টিকেল পেতে গুগল নিউজে আমাদের সাইট ফলো করুন

Back to top button